Connect with us

ফুটবল

AFC Cup: দিমিত্রির জোড়া গোল; ওড়িশাকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে গ্রুপ পর্যায়ের অভিযান শুরু মোহনবাগানের

Published

on

সৌম্যজিৎ দে, ভুবনেশ্বর: চলতি মরশুমে নিজেদের এএফসি কাপ গ্রুপ পর্বের অভিযান দারুন ভাবে শুরু করল মোহনবাগান। ওড়িশা এফসি’কে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে গুরু পর্যায়ের অভিযান শুরু করল তারা।

প্রথমার্ধে দুই দলই বেশ খানিকটা ধরে খেলার চেষ্টা করে। ঠিক যেন একে অন্যের শক্তি এবং দুর্বলতা মেপে নেওয়া। এরই মধ্যে হুগো বুমোসের একটি শট সাইড নেট হয়, এবং তার কিছুক্ষণ পরেই সাহাল একটি দারুণ বল নিয়ে ওড়িশা ডিফেন্সে ঢোকার চেষ্টা করলে তিনি বাধা পান এবং সুযোগটি নষ্ট হয়। প্রথমার্ধ শেষ হওয়ার ঠিক তিন মিনিট আগে অর্থাৎ খেলার ৪২ মিনিটের মাথায় ম্যাচের দ্বিতীয় হলুদ কার্ড পেয়ে এবং লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন ওড়িশার নির্ভরযোগ্য ডিফেন্ডার মুরতাদা ফল। এরপরে প্রথমার্ধ গোলশূন্যভাবে শেষ হয়।

দ্বিতীয়ার্ধের একেবারে শুরুর মিনিটেই গোল পেয়ে যায় সবুজ মেরুন ব্রিগেড। ৪৬ মিনিটের মাথায় ডান দিক থেকে বুমোসের মাপা ক্রস থেকে বক্সের মধ্যে বল পেয়ে তা জালে জড়াতে ভুল করেননি সাহাল আব্দুল সামাদ। খেলার ৫৪ মিনিটের মাথায় ফের একবার বোলের মুখ প্রায় খুলে ফেলেছিল মোহনবাগান। ডান দিক থেকে বক্সের মধ্যে বল নিয়ে ঢুকে পড়েন আনোয়ার আলি। তার থেকে বল পান দিমিত্তি পেত্রাতস, তবে তার শট অল্পের জন্য বাইরে যায়। এরপর খেলার ৫৫ মিনিটের মাথায় সাদিকুর পরিবর্তে মাঠে নামেন জেসন কামিন্স। তিনি নামতে খেলার ঝাঁজ বাড়ে মোহনবাগানের।

এরপর খেলার ৬৪ মিনিটের মাথায় ম্যাচের সহজ তম সুযোগটি নষ্ট করে মোহনবাগান। ওড়িশার ডিফেন্ডারদের ভুলে বল পেয়ে যান দিমিত্রি। তার শট গোলরক্ষকের গায়ে লেগে গোলে ঢোকার সময় তা গোল লাইন সেভ করেন আহমেদ জাহু। এরপর খেলার ৬৬ মিনিটের মাথায় হলুদ কার্ড দেখেন হেক্টর ইউসতে।

খেলার ৬৮ মিনিটের মাথায় ম্যাচের দ্বিতীয় পায় সবুজ মেরুন ব্রিগেড। সাহালের বা পায়ের জোরালো শট কোনরকমে বাঁচান ওড়িশা গোলরক্ষক অমরিন্দর, তার থেকে ফিরে আসা বল ধরে নিয়ে গোল করে যান দিমিত্রি। এর কিছুক্ষণ পরে অর্থাৎ ৭৩ মিনিটের মাথায় সাহাল এবং শুভাশিসের জায়গায় মাঠে নামেন গ্লেন মার্টিনস এবং লিস্টন কোলাসো। এরপর খেলার ৭৬ মিনিটের মাথায় আরও একটি দারুণ সুযোগ পায় মোহনবাগান। লিস্টনের থেকে বল পেয়ে দিমিত্রি বল নিয়ে দারুণভাবে বক্সে ঢোকেন। সেখান থেকে তিনি মাপা পাশ বাড়ান লিস্টনের উদ্দেশ্যে। তবে তার শট দারুণভাবে সেভ করেন অমরিন্দর। খেলার ৭৯ মিনিটের মাথায় হুগোর থেকে বল পেয়ে মনবীর তা দেন লিস্টনকে। তিনি সেই বল গোলে ঠেলতে ভুল করেননি। ম্যাচের তৃতীয় গোল পায় মোহনবাগান। এরপর ৮২ মিনিটের মাথায় ওড়িশার কফিনে শেষ পেরেক পোতেন দিমিত্রি। ওড়িশার ডিফেন্ডার ভুল করলে বক্সের বাইরে বল পান দিমিত্রি। সেখান থেকে দলের হয়ে শেষ গোলটি করতে ভুল করেননি তিনি। ফলে ওড়িশাকে ৪-০ গোলে পর্যুদস্ত করে এএফসি কাপের অভিযান দারুন ভাবে শুরু করল মোহনবাগান।

ফুটবল

ক্যাপ্টেনকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছে গোটা দেশ

Published

on

রে স্পোর্টজ নিউজ ডেস্ক: সুনীল ছেত্রী শুধু একটা নাম নয়, ভারতীয় ফুটবলের আবেগ। বৃহস্পতিবার সকালেই নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের অবসরের কথা জানিয়েছেন ভারতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক। আগামী ৬ জুন যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে কুয়েতের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের ম্যাচ খেলতে নামবে ভারত। এই ম্যাচেই শেষ বারের মতো জাতীয় দলের জার্সিতে দেখা যাবে সুনীলকে। বিদায়বেলায় সুনীলকে নিয়ে আবেগঘন বার্তা দিলেন তার সতীর্থরা। ফুটবলের ময়দান ছাড়িয়ে সুনীলের জন্য শুভেচ্ছা পাঠাচ্ছেন ক্রিকেট দুনিয়ার ব্যক্তিত্বরা।

সুনীল ছেত্রীর খুব কাছের বন্ধু বিরাট কোহলি। বন্ধুর বিদায়বার্তা জানতে পেরেই তাঁকে শুভেচ্ছা জানালেন বিরাট। বললেন “ভাই, তোমার জন্য আমি গর্বিত।” আইপিএল চলাকালীন আরসিবির শিবিরেও দেখা গিয়েছিল ছেত্রীকে। সুনীলের সতীর্থ গুরপ্রীত বললেন “এই দিনটা দেখার অপেক্ষায় ছিলাম না। ৬ জুন গোটা দেশ তোমার অবসর উদযাপন করবে। তুমিই সবার সেরা অধিনায়ক।” অন্যদিকে ভারতীয় ফুটবল সংস্থা বা ক্রিকেট বোর্ড, সকলেই শুভেচ্ছা জানালেন সুনীলকে। প্রায় দুই দশক ভারতীয় ফুটবলের প্রতিনিধিত্ব করে সুনীল এখন জাতীয় আইকন।

Continue Reading

ফুটবল

ভারতীয় ফুটবলে সুনীল যুগের অবসান

Published

on

রে স্পোর্টজ নিউজ ডেস্ক: ভারতীয় ফুটবলে শেষ হতে চলেছে একটি অধ্যায়। যে অধ্যায়ের নাম সুনীল ছেত্রী। চিরতরের জন্য বুট জোড়া তুলে রাখার সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি। আর অবসরের জন্য বেছে নিলেন তার প্রিয় শহর কলকাতাকেই। আগামী ৬ জুন কলকাতার যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে কুয়েতের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের ম্যাচ খেলবে ভারত। এই ম্যাচটাই জাতীয় দলের জার্সিতে শেষ ম্যাচ হতে চলেছে সুনীলের। ২০০৫ সালে ভারতের জাতীয় দলে অভিষেক হয়েছিল তাঁর। দেশের হয়ে প্রথম ম্যাচেই গোল পেয়েছিলেন সুনীল। এরপর অনেক চড়াই-উতরাই পেড়িয়ে ৩৯ বছর বয়সে নিজের ফুটবল জীবনে ইতি টানলেন।

বৃহস্পতিবার সকালে নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করে নিজের অবসরের কথা জানান ভারত অধিনায়ক। অবসর ঘোষণার দিনে জাতীয় দলে অভিষেকের স্মৃতি রোমন্থন করে বললেন “একটা দিনের কথা কখনোই ভুলব না। যে দিন দেশের জার্সি গায়ে প্রথম বার ভারতের হয়ে খেলতে নেমেছিলাম। সেই অনুভূতিটাই আলাদা।” সেখান থেকেই শুরু। ধীরে ধীরে নিজেকে ভারতের সেরা স্ট্রাইকার করে তুলেছেন। ভারতীয় ফুটবলে বহু কোচ বদল হয়েছে। কিন্তু কেউই সুনীলকে ছাড়া দল গড়তে পারেননি। এখনও সূনীলের যোগ্য উত্তরসূরী খোঁজার কাজ চলছে। তাই বলাই যায় সুনীল ছেত্রীর অবসর মানে, ভারতীয় ফুটবলে একটা যুগের অবসান। প্রায় দুই দশক ধরে ভারতীয় ফুটবলের পতাকা উড্ডীন করেছিলেন সুনীল ছেত্রী।

Continue Reading

ফুটবল

ভারতীয় অ্যাকাডেমির ফুটবলার যোগ দিচ্ছেন ব্ল্যাকবার্ন রোভার্সে

Published

on

রে স্পোর্টজ নিউজ ডেস্ক: ভারতীয় ফুটবল প্রেমীদের জন্য এ এক দারুণ খবর। মুম্বই সিটি অ্যাকাডেমির ছাত্র যোগ দিচ্ছেন ইংল্যান্ডের নামকরা ক্লাবে। অনূর্ধ্ব ১৫ দলের হয়ে খেলার সময়ে ভারতীয় ফুটবল প্রেমীদের অনেকের নজর কেড়েছিলেন নিয়াল গোঘাভালা। এবার তিনি যোগ দিতে চলেছেন ইংল্যান্ডের ক্লাব ব্ল্যাকবার্ন রোভার্সে। মুম্বই সিটি ছাড়াও নিয়াল ‘বার্সা অ্যাকাডেমি মুম্বই’-এর ছাত্র। ব্ল্যাকবার্ন রোভার্স ইংলিশ চ্যাম্পিয়নশিপের দ্বিতীয় ডিভিশন ফুটবল ক্লাব। এর আগে মুম্বই সিটি এফসির অনূর্ধ্ব-১৫ দলের হয়ে এআইএফএফ জুনিয়র বয়েজ ন্যাশনাল ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিয়েছিলেন নিয়াল গোঘাভালা।

Continue Reading

Trending