Connect with us

আন্তর্জাতিক ফুটবল

Intercontinental Cup: ট্রফি জিতে, এএফসি এশিয়ান কাপের প্রস্তুতি এগোতে চাইছেন স্টিমাচ, সুনীল…

Published

on

সৌমজিৎ দে ও শুভম মন্ডল ভুবনেশ্বর: ২০২৪ এএফসি এশিয়ান কাপে কঠিন প্রতিপক্ষদের মুখোমুখি হওয়ার আগে ভুবনেশ্বরে অনুষ্ঠিত হতে চলা ইন্টার কন্টিনেন্টাল কাপ অন্যতম একটি প্রস্তুতির জায়গা ইগর স্টিমাচের ভারতীয় ফুটবল দলের কাছে। টুর্নামেন্ট শুরুর আগের দিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে ভারতীয় দলের হেড কোচ জানিয়ে গেলেন যে, এখানে তাদের প্রতিপক্ষ দলগুলি এশিয়ান কাপে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বীদের মত দরের না হলেও, যথেষ্টই লড়াই হবে।

সাংবাদিক সম্মেলনে ইগর বলেন,”আসন্ন ম্যাচগুলি আমরা এশিয়ান কাপের প্রস্তুতি হিসেবেই নেব। তবে আমাদের প্রতিপক্ষরা ততটা শক্তিশালী নয় এশিয়ান কাপের দলগুলির মত, তবে আমাদের প্রথম প্রতিপক্ষ মঙ্গোলিয়া বেশ শক্তিশালী, এবং আমাদের দলের ফুটবলারদের কাছে এটা নিজেদের প্রমাণ করার একটা ভালো জায়গা।”

এর পাশাপাশি এই টুর্নামেন্টে প্রতিটা ম্যাচই যে চ্যালেঞ্জিং হবে তাও এক কথায় স্বীকার করে নিচ্ছেন ভারতীয় দলের হেড কোচ।”এখানের প্রতিটা ম্যাচই চ্যালেঞ্জিং, তবে আমাদের কাছে একটা এডভান্টেজ হল, দলের প্রতিটা ফুটবলার সম্পূর্ণ তরতাজা কারণ তারা বেশ কয়েক মাস আগে শেষ টুর্নামেন্ট খেলেছে। আইএসএল এবং সুপার কাপ অনেক আগেই শেষ হয়ে গেছে, অন্যদিকে মঙ্গোলিয়ায় এখনও ঘরোয়া লিগ চলার কারণে, মধ্যে একটা ক্লান্তি থাকবে, আমাদের সেটার সুযোগ নিতে হবে,” বলেন ইগর।

দীর্ঘদিন ভারতীয় দলের হয়ে খেলছেন সুনীল ছেত্রী। ভারতের যুব ফুটবলাররা তাকে অনুপ্রেরণা মনে করেন। সুনীলকে এই ব্যাপারে ম্যাচের আগে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন,”দেখুন আমি নিশ্চিত নই, জুনিয়রদের আমি কতটা অনুপ্রাণিত করতে পারি। আমি নিজে সবসময় নিয়মের মধ্যে দিয়ে চলতে পছন্দ করি। ঠিক সময় মাঠে আসা, অনুশীলন করা, খাওয়া এবং ঘুমানো সমস্ত কিছু আমি একটা নির্দিষ্ট নিয়মের মধ্যে থেকে করি। আমি মনে করি জাতীয় ক্যাম্পে এলে আমাদের সবসময় একটা নিয়মের মধ্যে থাকা উচিত কারণ এখানে সুযোগ পাওয়া আমাদের কাছে একটা ভাগ্যের ব্যাপার। তাই এই আমি তরুণ ফুটবলারদের সব সময় একটা নির্দিষ্ট নিয়মের মধ্যে চলতে বলব এবং সেটা ওদের একজন পেশাদার ফুটবলার হতে সাহায্য করবে।”

এর পাশাপাশি সুনীল এখনই এশিয়ান কাপ নিয়ে ভাবতে রাজি নন, সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন,”এশিয়ান কাপ এখনও অনেকটাই দূরে, তাই আমরা এখনই ওটা নিয়ে ভাবতে রাজি নই, আমরা এখন আগামী তিনটে ম্যাচ নিয়ে ভাবছি। আগামীকাল আমরা মঙ্গোলিয়ার মুখোমুখি হব এবং আমরা সেই ম্যাচ নিয়েই ভাবছি। যদিও আমাদের সকলের মনের গভীরেই এশিয়ান কাপ নিয়ে একটা ভাবনা রয়েছেই, তবে আমরা প্রতি ম্যাচ ধরে এগোতে চাই।”

আন্তর্জাতিক ফুটবল

জয়ে ফিরল বেলজিয়াম

Published

on

রে স্পোর্টজ নিউজ ডেস্ক – শনিবার রাতে রোমানিয়াকে ২-০ গোলে হারিয়ে ইউরো কাপের শেষ ষোলোয় যাওয়ার আশা বাঁচিয়ে রাখল বেলজিয়াম। প্রথম ম্যাচে স্লোভাকিয়ার কাছে অপ্রত্যাশিত হারের পর দুরন্ত প্রত্যাবর্তন লুকাকুদের। বেলজিয়ামের জয়ে জমে গেল গ্রুপ ই-এর লড়াই। একাধিক সুযোগ নষ্ট করেও জিতল বেলজিয়াম। এদিন ম্যাচ শুরুর দু’মিনিটের মধ্যেই টিলেম্যান্সের গোলে এগিয়ে যায় বেলজিয়াম। লুকাকুর পাশ থেকে বল জালে জড়াতে ভুল করেননি তিনি। এদিন মাত্র ৭৩ সেকেন্ডে গোল করে নজির গড়লেন টিলেম্যান্স। কোনও মেজর আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের ইতিহাসে বেলজিয়ামের জার্সিতে সবচেয়ে দ্রুততম গোলের নজির গড়লেন তিনি। এরপরেই শুরু হয় সুযোগ নষ্টের বন্যা। ভাগ্য সঙ্গ দিচ্ছে না রোমেলু লুকাকুর। চলতি ইউরো কাপে এখনও স্কোরশিটে নাম তুলতে পারেননি তিনি। দুই ম্যাচ মিলিয়ে ইতিমধ্যেই তিনটি গোল বাতিল হয়েছে তাঁর। এদিনও তাঁর একটি গোল ‘ভার’এর সাহায্য নিয়ে বাতিল করেন রেফারি। তাছাড়াও বেশ কয়েকবার গোলের কাছাকাছি গিয়েও বল জালে জড়াতে পারেননি লুকাকু।

স্লোভাকিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচ হারায় চাপে ছিল বেলজিয়াম। এদিন হারলেই বিদায়। তাই এদিন শুরু থেকেই গোলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠেন ডি-ব্রুইন, লুকাকুরা। মূলত বাম প্রান্ত ধরেই আক্রমণ তুলে আনছিল বেলজিয়াম। একাধিক পাশ বাড়ালেও, নিশানায় বল রাখতে পারেননি ডোকু, লুকাকুরা। প্রথমার্ধে এক গোলে পিছিয়ে থেকেই সাজঘরে যায় রোমানিয়া। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই তারা সমতা ফেরানোর সুযোগ পেয়েছিল। দ্বিতীয়ার্ধেও আধিপত্য বজায় রাখে বেলজিয়াম। তবে একাধিক সুযোগ নষ্ট করে ডি-ব্রুইনরা। বিক্ষিপ্ত আক্রমণে গোলের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েও কাজের কাজটা করে উঠতে পারেনি রোমানিয়া। শেষ পর্যন্ত ৭৯ মিনিটে কেভিন ডি-ব্রুইনের গোলে জয় নিশ্চিত করে বেলজিয়াম। এই জয়ের ফলে দুই ম্যাচে তিন পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের দ্বিতীয় স্থানে বেলজিয়াম। বাকি তিনটি দলের পয়েন্ট সংখ্যাও তিন। শেষ ষোলোতে ওঠার লড়াইয়ে নাটকীয় শেষ রাউন্ডের মঞ্চ প্রস্তুত।

বেলজিয়াম – ২ (টিলেম্যান্স, ডি ব্রুইন)
রোমানিয়া – ০

Continue Reading

আন্তর্জাতিক ফুটবল

শেষ ষোলোয় পর্তুগাল, ড্র ফ্রান্সের

Published

on

রে স্পোর্টজ নিউজ ডেস্ক – তুরস্কের বিরুদ্ধে বড় জয় পর্তুগালের। ৩-০ গোলে জিতে ইউরো কাপের শেষ ষোলোয় জায়গা পাকা করে নিলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোরা। প্রথম ম্যাচে জর্জিয়াকে হারানোর পর, দ্বিতীয় ম্যাচে তুরস্কের বিরুদ্ধে এগিয়ে থেকেই মাঠে নেমেছিল পর্তুগাল। নব্বই মিনিট জুড়েই আধিপত্য দেখাল সিআর সেভেনের দল। যদিও গোল পেলেন না সিআর সেভেন। ম্যাচ শুরুর ছ’মিনিটের মাথায় তুরস্কের কাছে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ ছিল। ২১ মিনিটের মাথায় বার্নার্ডো সিলভার গোলে এগিয়ে যায় পর্তুগাল। সাত মিনিটের মধ্যেই তুরস্ক রক্ষণের ভুলে আত্মঘাতী গোল থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ হয়। প্রথমার্ধে ২-০ গোলে এগিয়ে থাকায়, দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়ায় পর্তুগাল। ৫৪ মিনিটে রোনাল্ডোর বাড়ানো পাস থেকে গোল করে দলের জয় নিশ্চিত করেন ব্রুনো ফার্নান্ডেজ। ৩-০ গোলে তুরস্ককে উড়িয়ে দিয়ে হাসিমুখে মাঠ ছাড়েন সিআর সেভেনরা।

অন্যদিকে, ডাচেদের কাছে আটকে গেল এমবাপে-হীন ফ্রান্স। প্রথম ম্যাচে অস্ট্রিয়ার বিরুদ্ধে ১-০ গোলে জিতলেও, নাকে চোট পেয়েছিলেন ফরাসি তারকা ফুটবলার। নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে মাঠে নামার আগে এমবাপের চোট চিন্তায় রেখেছিল দিদিয়ের দেশঁকে। এদিন গোলশূন্য ড্র-তেই সন্তুষ্ট থাকতে হল ফ্রান্সকে। ম্যাচের প্রথম মিনিটেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ ছিল নেদারল্যান্ডসের কাছে। যদিও সে যাত্রায় ফ্রান্সকে রক্ষা করেন গোলরক্ষক মাইক মাইগনান। একাধিক সুযোগ নষ্ট করে ফ্রান্স। ৬৯ মিনিটে এগিয়ে গিয়েছিল নেদারল্যান্ডস। যদিও অফসাইডের কারণে সেই গোল বাতিল হয়ে যায়। গোল বাতিল নিয়ে অসন্তুষ্টি দেখা যায় ডাচ ফুটবলারদের মধ্যে। শেষ পর্যন্ত একটি করে পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছাড়ে দুই দল।

শনিবার প্রথম ম্যাচে চেকিয়ার বিরুদ্ধে ১-১ গোলে ড্র করেছে জর্জিয়া। প্রথমার্ধে পেনাল্টি থেকে গোল করে এগিয়ে যায় ‌জর্জিয়া। পেনাল্টি থেকে গোল করেন জর্জেস। দ্বিতীয়ার্ধে চেকিয়াকে সমতায় ফেরান প্যাট্রিক শিক। সুযোগ পেলেও কাজে লাগাতে পারেনি চেকিয়া। এক পয়েন্ট নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাদের।

Continue Reading

আন্তর্জাতিক ফুটবল

ড্র চিলির

Published

on

রে স্পোর্টজ নিউজ ডেস্ক – পেরুর বিরুদ্ধে কষ্টার্জিত ড্র চিলির। ম্যাচের শুরু থেকেই চিলির উপর চাপ তৈরি করেছিল পেরু। কিন্তু সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পেরুর উপর চাপ বাড়াতে শুরু করে চিলি। প্রথমার্ধে সুযোগ থাকলেও গোল করতে পারেননি অ্যালেক্সিস সানচেজরা। একাধিক সুযোগ তৈরি করেও নব্বই মিনিট জুড়ে গোলমুখ খুলতে পারেনি কোনো দলই।

Continue Reading

Trending